মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

মাসিক সভাসমূহ

 

১নং উমরপুর ইউনিয়ন পরিষদের আগষ্ট/২০১৬  খ্রিঃ মাসের মাসিক সভার কার্য বিবরনী      

সভায় সভাপতিত্ব করেনঃ- জনাব মোঃ গোলাম কিবরিয়া চেয়ারম্যান ১নং উমরপুর ইউনিয়ন পরিষদ

সভার তারিখ ও সময়ঃ- ২১/০৮/২০১৬ খ্রিঃ দুপুর ১২.০০ ঘটিকা।

সভার স্থানঃ- ইউনিয়ন পরিষদ সম্মেলন কক্ষ।

সভার উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট-ক

          সভাপতি সাহেব উপস্থিত সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়ে সভার কাজ আরম্ভ করেন।

০১। সভায় প্রকল্প পরিচালক/ অতিরিক্ত সচিব জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন প্রকল্প কক্ষ নং- ১০৮-১০৯/১ম তলা পরিবহন পুল ভবন সচিবালয় লিংক রোড ঢাকা-১০০০ মহোদয়ের পত্র খানা পাঠ করে শুনানী হয়। অতঃপর বর্ণিত পত্রের পরিপ্রেক্ষিতে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইন ২০০৪ বিগত ০৩ জুলাই ২০০৬ থেকে কার্যকর হয়েছে। বিধায় আভিযান কালীন সময়ে যাহাদের নাম জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন রেজিষ্টারে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে তদ্বব্যতিত নিম্নোক্ত শর্তাবলী মেনে নিবন্ধন রেজিষ্টারের লিপিবদ্ধ করার জন্য সকল সদস্য/সদস্যাদের প্রতি আহবান জানান। এ বিষয়ে সভায় বিস্তারিতভাবে আলোচনা হয়,এবং আলোচনান্তে নিম্নোক্ত সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

সিদ্ধান্তঃ

X জন্ম তারিখ পরিবর্তন করা যাবে কিনা ?

: আবেদন পত্রে লিখিত জন্ম তারিখ যথাযতভাবে প্রত্যায়িত হবার পরেই নিবন্ধিত হয়, তাই আদালতের আদেশ ব্যতিত জন্ম তারিখ পরিবর্তন করা যাবে না।

Xবিবাহীত নারীর জন্ম নিবন্ধন এ স্বামীর নাম লিখা যাবে কি বা তাহার স্থায়ী ঠিকানা কিভাবে লিখতে হবে ?

: যে কোন জন্ম নিবন্ধনের ক্ষেত্রে পিতা ও মাতার নাম লিখতে হবে। কোন অবস্থাতে স্বামীর নাম লেখার সুযোগ নাই। বিবাহিত মহিলার স্থায়ী ঠিকানা বিবাহের পূর্বে যে ঠিকানা ছিল সেটি লিখতে হবে।

Xএকই ব্যক্তি একাধিকারবার জন্ম নিবন্ধন করতে পারবে কি না ?

:একই ব্যক্তির অনূকূলে একাধিকবার জন্ম নিবন্ধন করা যাবে না। এটি জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইন, ২০০৪ এর ২১ ধরা অনুযায়ী দন্ডনীয় অপরাধ।

X২০০৬ সালের পূর্বে যারা মৃত্যু বরন করেছে তাদের মৃত্যু নিবন্ধন করা যাবে কি না ?

: জন্ম ও মৃত্যু নিনন্ধন আইন, ২০০৪  বিগত ০৩ জুলাই ২০০৬ হতে কার্যকর হয়েছে। আইন কার্যকর হওয়ার পর এই আইনের বিধান মোতাবেক কোন ব্যাক্তির জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন করতে হবে। অর্থাৎ আইন কার্যকর হওয়ার দিন যারা জিবীত ছিলেন বা তার পরে যারা জন্ম গ্রহন করেছেন তাদের জন্য এই আইন কার্যকর হবে। ২০০৬ সালের ত জুলাইয়ের পূর্বে যিনি মৃত্যু বরন করেছেন এই আইনের অধিনে তার জন্ম নিবন্ধন করার কোন সুযোগ নাই। কোন মৃত ব্যক্তির জন্ম নিবন্ধন না হয়ে থাকলে তার মৃত্যু নিবন্ধনের পূর্বে জন্ম নিবন্ধন করা আবশ্যক। সুতরাং বিদ্যমান জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইনের অধিনে ৩ জুলাই ২০০৬ এর পূর্বে কোন ব্যক্তির মৃত্যু নিবন্ধন করা সংঘত হবে না।

০২। সভাপতি সাহেব সভাকে জানান যে, অত্র ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের হাবশপুর গ্রামের জনসাধারনের চলাচলের একমাত্র কাচা রাস্তা যাহা ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়াতে পেক কাঁদা সব সময় লেগে থাকে, বিধায় ইউপি তহবিলের অর্থ দ্বারা ইট সলিং এর মাধ্যমে উন্নয়ন করা হলে উক্ত গ্রামের জনসাধারনের চলাচলের সুবিধা হয়। এ বিষয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়, আলোচনান্তে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি গঠনসহ সর্ব সম্মতভাবে সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

কাজের নামঃ হাবশপুর গ্রামের রাস্তায় ইট সলিং- টাঃ ৪০,০০০/-

প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি

১। সুনাফর মিয়া, পিতা-হাজী আং মনাফ, কটালপুর, ইউপি সদস্য- সভাপতি

২। আশা রানী সুত্রধর, স্বামী-হিরনময় সুত্রধর, বনগ্রাম, ইউপি সদস্যা- সেক্রেটারী

৩। গয়াছ মিয়া,পিতা- রশিদ উল্লা, হাবশপুর, সমাজ সেবক,- সদস্য

৪। সোহেল মিয়া, পিতা- মাহমদ আলী, কটালপুর, সমাজকর্মী- সদস্য

৫। রাহাত মিয়া, পিতা- বাছা মিয়া, হাবশ পুর, সমাজ সেবক, সদস্য

০৩। রাজস্ব আদায়ঃ সভাপতি সাহেব সভাকে জানান যে, ২০১১-২০১২ অর্থ বছরের তুলনায় ২০১২-২০১৩ অর্থ বছরের রাজস্ব আয় খুবই কম হয়েছে। বিধায় ইউপি ট্যাক্স এবং ব্যবসার ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন এবং যাদের ব্যবসায়ীদের ব্যবসার ট্রেড লাইসেন্স নেই তাদের ইউপি হতে ট্রেড লাইসেন্স সংগ্রহ করা জন্য ব্যবসায়ীদের অবগতি এবং ট্রেড লাইসেন্স বিহীন যাহাতে ব্যবসা করিতে না পারেন তৎপতি নজর রাখার জন্য সদস্যদের প্রতি আহবান জানান। এ বিষয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়, আলোচনান্তে নিম্নোক্ত সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

সিদ্ধান্তঃ

ক) বকেয়াসহ চলতি সনের ইউপি ট্যক্স জরুরি ভিত্তিতে আদায়ের ব্যবস্থা গ্রহন করা।

খ) ব্যবসায়ী কর্তৃক ব্যবসায় ট্রড লাইসেন্স ইউপি হতে সংগ্রহ করা বাধ্যতামূলক।

গ) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বালাগঞ্জ সিলেট মহোদয়ের আদেশক্রমে ইউনিয়ন এলাকায় ইউনিয়ন বাসীর অবগতি জন্য মাইকিং এর ব্যবস্থা নেয়া।

ঘ) যে সকল কর দাতা ইউপি ট্যক্স সময়মত পরিশোধ করিবেন না বা যে সকল ব্যবসায়ীগন ট্রেড লাইসেন্স ব্যতিত ব্যবসা পরিচালনা করিবেন, তাহারা ইউনিয়ন পরিষদ হতে সকল প্রকারের সেবা পাওয়া থেকে বঞ্চিত হইবেন।

বাস্তবায়নেঃ ১ নং উমরপুর ইউনিয়ন পরিষদ।

৪। উন্নয়ন প্রকল্পঃ- সভাপতি সাহেব সভাকে জানান যে, বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এ ডি পি) এর আওতায় এল জি ইডি রাস্তা হতে উমরপুর আং হাসিম এর বাড়ীর সামন পর্যন্ত রাস্তাটি R.C.C মাধ্যমে বাস্তবায়নের জন্য অনুমোদিত হয়। কিন্তু বর্তমানে উক্ত রাস্তাটির কিছু অংশ ভাঙ্গিয়া পুকুরের সাথে মিলিত হওয়ায়  ঠিকাদার কর্তৃক বাস্তবায়ন করা সম্ভব নহে বিধায় উক্ত প্রকল্পের পরিবর্তে এল জি ইডি খুজগীপুর মোকামের রাস্তার ২য় অংশ বাস্তবায়ণের জন্য সভার প্রতি আহবান জানান। এ বিষয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়, আলোচনান্তে নিম্নোক্ত সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

সিদ্ধান্তঃ-

কাজের নামঃ- এল জি ইডি রাস্তা হতে উমরপুর আং হাসিম এর বাড়ীর সামন পর্যন্ত R.C.Cঢালাই।

এর পরিবর্তেঃ- এল জি ইডি খুজগীপুর মোকামের রাস্তার ২য় অংশ R.C.Cঢালাই এর মাধ্যমে উন্নয়ন।

০৫। স্থাবর সম্পত্তি ১% করঃ সভাপতি সাহেব সভাকে জানান যে, স্থাবর সম্পত্তির হস্থান্তর ১% কর এর বরাদ্দের অর্থ দ্বারা নিম্নোক্ত প্রকল্প সমূহ বাস্তবায়নের জন্য সভার প্রতি আহবান জানান। এ বিষয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়, আলোচনান্তে নিম্নোক্ত প্রকল্প সমূহ বাস্তবায়নের জন্য সর্ব সম্মতভাবে সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। 

সিদ্ধান্তঃ-

কাজের নামঃ-

১। এল জি ইডি রাস্তা হতে বড় ইশবপুর লেখনমিয়ার বাড়ীর সামন পর্যন্ত ইট সলিং।–

--------        টাঃ ১,০০,০০০/-

২। খাদিমপুর পুরান বাজারের উত্তরে কার্লভার্ট নির্মান    --------        টাঃ ৪৫,০০০/-

৩। হাবশপুর রাস্তায় কার্লভার্ট নির্মান                        --------        টাঃ ৫৫,০০০/-

সর্বমোট  ২,০০,০০০/-

বিবিধঃ ০১। সভাপতি সাহেব সভাকে জানান যে, দৈনন্দিন ব্যাপক হারে কাজের পরিমান বৃদ্ধি পাওয়ায় বিভিন্ন রেজিষ্টারসহ আনুসাংগিক নথীপত্র একটি মাত্র আলমিরা দ্বারা সংকুলান হইতেছেনা বিধায় আরও একটি আলমিরা ক্রয় করা একান্ত আবশ্যক। এ বিষয়ে সভায় বিস্তারীতভাবে আলোচনা হয়। আলোচনান্তে ক্রয় কমিটি অথবা কোটেশনের মাধ্যমে ক্রয় করার জন্য সর্ব সম্মতভাবে সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। 

০২। সভাপতি সাহেব সভাকে জানানযে, ইদানিং দেখা যাচ্ছে যে, অত্র ইউনিয়নের কলোনীতে অস্থায়ী যাহারা বসবাস করিতেছে তাহারা প্রায়ই মদ গাজা অপকর্ম সহ বিভ্ন্নি অসামাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত রহিয়াছে। বিধায় কলোনীর মালিকগন অস্থানীয় লোকদের ভাড়া দেওয়ার পূর্বে পরিচয় পত্র (সনদপত্র) সহ সম্পর্ন রুপে অবগত হওয়ারপর ভাড়াটিয়াকে বসবাসের স্থান দিতে হইবে। এ বিষয়ে সভায় বিস্তারীতভাবে আলোচনা হয়, আলোচনান্তে নিম্নোক্ত সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

 সিদ্ধান্তঃ-

ক)মাইকিং এর মাধ্যমে কলোনীর মালিকগনকে অবগত করতে হবে।

খ) সম্পর্নরুপে অবগত এবং পরিচয় পত্র (সনদপত্র) সংগ্রহ পূর্বক ভাড়াটিয়াকে বসবাসের জায়গা দিতে হবে।

গ) অস্থানীয় ভাড়াটিয়া কর্তৃক কলোনীতে বা অত্র ইউনিয়নের যে কোন স্থানে মদ গাজা বা অসামাজিক কার্যকলাপ থেকে বিরত থাকতে হবে।

ঘ) কলোনীতে নতুনভাবে আগত মেহমান (নারী-পূরুষ) কলোনীর মালিককে অবগত করা সাপেক্ষে কলোনীতে জায়গা দিতে হইবে। 

ঙ) কলোনীর মালিক কর্তৃক কোন ধরনের তসরুপ দেখা দিলে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা কর্তৃক  আইনতঃ ব্যবস্থা গ্রহন করা হইবে।

বাস্তবায়নেঃ ওয়ার্ড সদস্য সকল।

 

           অতঃপর আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি সাহেব উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন। 

বাস্তবায়নেঃ ওয়ার্ড সদস্য সকল।

 

 

                                                                    মোঃ ফারুক আহমদ

                                                                    সভাপতি /চেয়ারম্যান

                                                            ১নং উমরপুর ইউনিয়ন পরিষদ

                                                            থানাঃ ওসমানী নগর,বালাগঞ্জ, সিলেট।